প্রযুক্তি সংবাদ
তথ্য-প্রযুক্তি
নতুন মডেল জিপিটি ফোর-ও ভার্চুয়াল অ্যাসিস্টেন্ট উন্মোচন
চ্যাট জিপিটি কী কী করতে পারে? এর বদলে এখন নতুন প্রশ্ন চ্যাট জিপিটি কী করতে পারে না? এবার টেক্সটের পাশাপাশি অডিও ও ভিডিওর মাধ্যমে ব্যবহারকারীর সঙ্গে কথপোকথন করতে পারবে চ্যাট জিপিটি। সোমবার ( ১৩ মে) ওপেন এআই উন্মুক্ত করেছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার নতুন মডেল জিপিটি ফোর-ও ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট। প্রতিমাসে ২০ ডলারের বিনিময়ে বাসায় নিয়ে আসতে পারেন গণিত কিংবা ভাষা শিক্ষার নতুন শিক্ষকও।

প্রযুক্তির দুনিয়ায় এবার আরও একটি আমূল পরিবর্তন নিয়ে এলো ওপেন এআই। সোমবার লাইভস্ট্রিমে উন্মুক্ত করা হয় চ্যাটজিপিটির নতুন এআই মডেল জিপিটি ফোর-ও। আগে ভার্চুয়াল অ্যাস্টিস্ট্যান্ট হিসেবে টেক্সট ও ইমেজের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর সঙ্গে চলতো আলাপচারিতা।

এখন থেকে অ্যামাজনের অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যালেক্সার মতো মৌখিকভাবে কথোপকথন করা যাবে চ্যাটজিপিটির সঙ্গে। যেখানে ব্যবহারকারীরা উপভোগ করতে পারবেন বাস্তবসম্মত আলাপচারিতা। আপাতত ৫০টি ভাষায় ব্যবহার করা যাবে নতুন মডেলটি। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা বলছেন, গেল বছর লঞ্চ করা জিপিটি ফোর টার্বোর থেকে দ্বিগুণ দ্রুতগতিতে কাজ করতে পারবে জিপিটি ফোর ও।

ওপেন এআইয়ের প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা মিরা মুরাতি বলেন, 'জিপিটি ফোর-ও বুদ্ধিমত্তায় জিপিটি ফোরের মতো শক্তিশালী হলেও এটি দ্রুত গতিসম্পন্ন। পাশাপাশি টেক্সট, ভিশন ও অডিওর সক্ষমতা বেড়েছে। কয়েক বছর ধরে মডেলগুলোর উন্নয়নে কাজ করছি। তবে ব্যবহার সহজ করার বিষয়ে এটি সবচেয়ে বড় পদক্ষেপ।'

শুধু মৌলিক ব্যবহারই নয়, ত্রিকোনোমিতি থেকে শুরু করে প্রোগামিং এমনকি ভাষা শিক্ষায় শিক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে পারে চ্যাট জিপিটি। প্রতিমাসে মাত্র ২০ ডলারের বিনিময়ে চাইলে এমন স্মার্ট ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট রাখতে পারবেন আপনিও।

ইএ