শিকড়
হুমকিতে শেরপুরের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষা ও সংস্কৃতি
সময়ের সাথে হারাতে বসেছে শেরপুরের ৭টি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতি। নিজেদের ভাষার শিক্ষক ও পাঠ্যবইয়ের সংকটের সাথে পরিবারেও চর্চা কমেছে। তাই নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতি টিকিয়ে রাখতে শিক্ষক নিয়োগের পাশাপাশি কালচারাল একাডেমি স্থাপনের দাবি এসব জাতিগোষ্ঠীর।
হারিয়ে যাচ্ছে বগুড়ার আঞ্চলিক শব্দ আর ভাষাগুলো
হামি, তুমি, মুই হামরা। গান, গল্প, কবিতা আর উপন্যাসেও তেমন ঠাঁই নেই এই ভাষার। শুদ্ধ ভাষার চর্চা করতে গিয়ে দিনকে দিন প্রমিত ভাষা কেড়ে নিচ্ছে মায়ের মুখ থেকে শেখা এমন শব্দ আর আঞ্চলিক ভাষাগুলো। আঞ্চলিক স্বাতন্ত্র রক্ষায় এই ভাষাগুলো বাঁচাতে দরকার পৃষ্ঠপোষকতা।
'আঞ্চলিকতা' বাংলা ভাষার এক অন্যতম সম্পদ
অঞ্চলভেদে ভাষা বদলে যায়। আর এই আঞ্চলিক ভাষার সৌন্দর্যই বাংলা ভাষার অন্যতম সম্পদ। একই শব্দ ভিন্ন অঞ্চলে নানান আঙ্গিকে ব্যবহৃত হয়ে সমৃদ্ধি বাড়ায় ভাষার। ভাষাবিদরা মনে করেন, কোনো কারণে আঞ্চলিক ভাষা প্রাচুর্য হারালে, তা হতে পারে সাংস্কৃতিক বিপর্যয়ের কারণ।
আরও ৩ পণ্যের জিআই স্বীকৃতি
বাংলাদেশে জিআই পণ্য হিসেবে অনুমোদন পেল আরও ৩টি পণ্য। এ নিয়ে দেশে অনুমোদিত জিআই পণ্যের সংখ্যা ৩১টিতে দাঁড়ালো।
প্রধানমন্ত্রীকে ৩টি জিআই পণ্যের সনদ হস্তান্তর
প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভা বৈঠক