ক্রিকেট
এখন মাঠে

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে এখনই অবসর নিতে চান না সাকিব

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কোনো ফরম্যাট থেকে এখনই অবসরের পরিকল্পনা নেই সাকিব আল হাসানের। কানাডায় টি-টোয়েন্টি লিগে খেলতে যাওয়ার আগে এমনটাই মন্তব্য তার। আইসিসির বিশ্বকাপে ইতিহাস গড়ার সুযোগ মিস হওয়ায় হতাশ এ অলরাউন্ডার। এছাড়াও দলের ভেতরের খবর বাইরে যাওয়ার হতাশ তিনি।

আষাঢ়ের আকাশ বিষণ্নতায় ভার ছিল। মেঘে ঢাকা বৃষ্টিতে ছিল পুরো দিন। তবে, শেষ বিকেলে আলো হয়ে বিমানবন্দরে এলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের বড় বিজ্ঞাপন সাকিব আল হাসান। সাবেক অধিনায়কের আগমনে গণমাধ্যম কর্মীদের আগ্রহ। কোথায় উড়াল দিচ্ছেন সাকিব। বুধবার থেকে কানাডার টি-টোয়েন্টি লিগ মাতাতে যাচ্ছেন সেভেন্টি ফাইভ।

যে ফরম্যাটে ভিন দেশের হয়ে খেলতে যাচ্ছেন। সেই ফরম্যাটে ছিল বিশ্ব মঞ্চে বাংলাদেশের ইতিহাস গড়ার দারুণ সুযোগ। তা আর হয়নি। এক রকম দুর্লভ সেই সুযোগ হেলায় হারিয়েছে টাইগাররা। কিন্তু, কেনো? কোথায় ছিল ঘাটতি।

সাকিব আল হাসান বলেন, 'আমরা যে ধরনের রেজাল্ট আশা করেছিলাম অথবা সুযোগ ছিল তা করতে পারি নাই। আমাদের হয়তো ইনিসিয়াল টার্গেট পূরণ হয়েছে। যারা নীতিনির্ধারকরা আছেন, তারা সিদ্ধান্ত দিতে পারবে কেন যেতে পারিনি। বোর্ড, কোচ, ম্যানেজমেন্ট তারা আলোচনা করে বলতে পারবে কোথায় ল্যাকিং ছিল এবং ভবিষ্যতে এই ল্যাকিংগুলো না থাকে সেগুলো নিয়ে কাজ করবে।'

সাকিব আর ভারতের রোহিত শর্মা খেলেছেন সবগুলো বিশ্বকাপ। রোহিত বিদায় বলেছেন। সমালোচকরাও বলছেন, বিশ্বসেরা সাকিবেরও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটকে বিদায়ের সময় চলে এসেছে। কিন্তু তিনি কী ভাবছেন?

ধেয়ে আসে এমন গতির প্রশ্নে, সোজা ব্যাটে খেললেন সাকিবও। 

তিনি বলেন, 'নিজেকে নিয়ে তেমন কোনো প্লান নেই। সামনে দুটি লিগ নিয়ে আপাতত ভাবনা রয়েছে। একটা হচ্ছে এমএলসি কানাডাতে আরেকটা গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি। পরপর এই দুইটা টুর্নামেন্ট খেলি দেখি কী হয় আমার। আর দেশের জন্য পাকিস্তানের সাথে আন্তর্জাতিক টেস্ট সিরিজ রয়েছে। আপাতত এখন পর্যন্ত প্লান এতটুকুই। খুব বেশি আসলে প্লান করিনি। নিজের বোঝার দরকার আছে। এখন আসলে তিন বছর, চার বছরের প্লান নেই। এখন আসলে তিন মাস ছয় মাসের প্লান করাটাই বেটার।'

এদিকে একটা বিষয়ে ক্ষুব্ধ এ ক্রিকেটার। দলের ভেতরের খবর কেনো বারবার ফাঁস হয়। তা নিয়ে খুবই হতাশ এই বিশ্ব অলরাউন্ডার।

ইএ

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর