ক্রিকেট
এখন মাঠে

গ্রুপপর্ব থেকে বাদ পড়া দলগুলোর সামনে সমীকরণ কী?

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইট নিশ্চিত করায় আগামী আসরে সরাসরি খেলতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে গ্রুপপর্ব থেকে বাদ পড়া পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার মতো দলগুলোর সামনে সমীকরণ কী? সরাসরি আগামী আসরে খেলতে কী করতে হবে তাদের?

চলতি বিশ্বকাপে একের পর এক অঘটনের শিকার হচ্ছে শক্তিমত্তায় এগিয়ে থাকা বড় দলগুলো। পরের পর্বে খেলার যতটুকুও সম্ভাবনা জেগে ছিলো তাও ধূলিস্যাৎ করে দিচ্ছে বৈরি আবহাওয়া। গ্রুপপর্ব থেকেই বাদ পড়েছে অপ্রত্যাশিত একাধিক দল। যার মধ্যে অন্যতম পাকিস্তান। আয়ারল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্র ম্যাচটি বাতিল হওয়ায় বাদ পড়ে বাবররা। আর যুক্তরাষ্ট্র ওঠে যায় সুপার এইটে। এই পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জনের আগামী বিশ্বকাপেও সরাসরি খেলতে পারবে দলটি।

পাকিস্তানের মতো গ্রুপপর্ব থেকে বাদ পড়েছে নিউজিল্যান্ডও। সি গ্রুপে ওয়েস্ট ইন্ডিজ আফগানিস্তানের চেয়ে পিছিয়ে থাকায় বিশ্বকাপ যাত্রা শেষ হয়েছে কিউইদের। তবে বড় এই দুই দল গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে গেলেও এখনো আগামী আসরে সরাসরি খেলার সুযোগ রয়েছে তাদের সামনে।

ভারত ও শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠেয় ২০২৬ বিশ্বকাপেও অংশ নেবে ২০ দল। এর মধ্যে চলতি আসরে সেরা আটে ওঠা দলগুলো সরাসরি টিকিট পাবে পরের বিশ্বকাপের। আর স্বাগতিক হিসেবে এমনি খেলার সুযোগ পাচ্ছে ভারত ও শ্রীলঙ্কা। এর মানে সুপার এইটে না উঠেও পরের বিশ্বকাপ নিশ্চিত লঙ্কানদের।

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, ২৬ বিশ্বকাপে শীর্ষ র‌্যাংকিংধারীদের জন্য দুটি জায়গা রাখা হয়েছে। অর্থাৎ সুপার এইটে না উঠেও কেবল র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে থাকলে খেলতে পারবে পরের বিশ্বকাপে। আর স্বাগতিক দলের মধ্যে কেউ সেরা আটে খেললে তাদের জায়গায় সুযোগ পাবে আরও এক দল। আগামী আসরের আয়োজক ভারত এরইমধ্যে সুপার এইটে ওঠায় আগামী বিশ্বকাপে র‌্যাংকিং ভিত্তিতে খেলতে পারবে তিন দল।

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে এই মুহূর্তে নিউজিল্যান্ড ৬ পাকিস্তান ৭ সেরা আটের দৌড়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে থাকা ইংল্যান্ডের অবস্থান চারে। ৩০ জুন পর্যন্ত তাদের অবস্থান ধরে রাখলে আগামী বিশ্বকাপে সরাসরি খেলতে পারবে দলগুলো। আর ইংল্যান্ড সেরা আটে জায়গা করে নিলে সুযোগ পাবে আয়ারল্যান্ড।

সবমিলিয়ে ২০২৬ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলতে যাচ্ছে ১২ দল। এর বাইরে বাকি ৮ দল তাদের আঞ্চলিক বাছাইপর্ব খেলে জায়গা করে নিতে হবে বিশ্বকাপের জন্য।

এভিএস

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর