ক্রিকেট
এখন মাঠে
ফারিহার রেকর্ড হ্যাট্রিকের পরও বাংলাদেশের হার
ফারিহা তৃষ্ণার হ্যাট্রিকের পরও শেষ রক্ষা হলো না বাংলাদেশের। তার ইতিহাস গড়ার দিনে ব্যাটারদের ব্যর্থতায় ৫৮ রানে হেরেছে টাইগ্রেসরা। এতে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিল অজি নারীরা।

অবিস্মরণীয়, অসাধারণ এক মুহূর্ত বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটে। ঘরের মাঠে শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হ্যাটট্রিকের এক অনন্য কীর্তি গড়েন বাংলাদেশের পেসার ফারিহা তৃষ্ণা।

সিরিজ বাঁচানোর ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ ওভারে বোলিংয়ের দায়িত্ব তৃষ্ণাকে বুঝিয়ে দেন অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি। প্রথম বলে বাউন্ডারি হাকান অ্যালিস পেরি। পরের দুই বলে দুই রান। এরপরই বাঁহাতি এই পেসারের আগ্রাসী রুপে একে একে ঘায়েল হন এলিস প্যারি, সোফি মলিনু ও বেথ মুনি। আর তাতে আইসিসির পূর্ণ সদস্যের দেশগুলোর মধ্যে প্রথম এবং সবমিলিয়ে তৃতীয় বোলার হিসেবে আন্তর্জাতিক নারী টি-টোয়েন্টিতে দুবার হ্যাটট্রিকে রেকর্ড করেন তৃষ্ণা। এর আগে দুবার হ্যাটট্রিকের রেকর্ড আছে উগান্ডার কনসুলেট আওয়েকো ও হংকংয়ের ক্যারি চ্যানের।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আড়াই বছর আগে ঘরের মাঠে অভিষেক হয় ২১ বছর বয়সী এই বোলারের। প্রথম ম্যাচেই বলের ঘুর্ণিতে সবাই তাক লাগান ফারিহা তৃষ্ণা। সিলেটে মালয়েশিয়া নারীদের বিপক্ষে প্রথম হ্যাটট্রিকের উল্লাসে মাতেন বাঁহাতি এই বোলার।

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ফারিহার হ্যাট্রিক স্বত্ত্বেও ৮ উইকেটে ১৬১ রানের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি গড়ে অস্ট্রেলিয়া। গ্রেস হ্যারিস এবং জর্জিয়া ওয়ারহামের জুটিতে আসে ৯১ রান। প্যারি এবং ম্যাক গ্রেথের ৩৯ রানের কার্যকরি জুটিতে পায় বড় সংগ্রহ।

মুরশিদা খাতুন,সোবহানা মোস্তারি,অধিনায়ক জ্যোতিদের হতাশাময় পারফরম্যান্সে ১০৩ রানে থামে বাংলাদেশ। শক্তিশালী অজিদের বিপক্ষে বিশের ঘর পেরিয়েছেন শুধু দিলারা আক্তার এবং স্বর্ণা আক্তার। তাতে ওয়ানডের পর ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটেও সিরিজ হার বাংলাদেশের।

ইএ