ক্রিকেট
এখন মাঠে
চেন্নাইয়ের মেন্টরের ভূমিকা পালন করছেন ধোনি
চলতি আইপিএলে এখন পর্যন্ত তিনটি ম্যাচ খেলেছে চেন্নাই সুপার কিংস, তাতে মাত্র একটি ম্যাচে ব্যাট হাতে নেমেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাও একেবারে না পারতে ৮ নাম্বারে নামলেন যেন ইচ্ছের বিরুদ্ধে। স্বভাবসুলভ ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছেন ধোনি। খেলেছেন ১৬ বলে ৩৭ রানের ক্যামিও ইনিংস। যদিও ম্যাচটা জেতেনি চেন্নাই সুপার কিংস।

আলোচনা চেন্নাইয়ের জয়-পরাজয় নিয়ে নয়, মাহেন্দ্র সিং ধোনির ভূমিকা নিয়ে। ৪২ বছর বয়সে খেলছেন বিশ্বের শীর্ষ ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগে। ব্যাট হাতে নামতে চাইছেন না, ক্যাপ্টেন্সিটাও ছেড়ে দিয়েছেন। তাহলে এমএস ধোনিকে কেন বয়ে বেড়াচ্ছে চেন্নাই?

উত্তরটা সহজ। দলে কেবল উইকেটকিপার-ব্যাটার হিসেবে নয়, মেন্টর হিসেবে খেলছেন ধোনি। তার ছোঁয়ায় সাধারণ মানের ক্রিকেটারও হয়ে উঠছেন অসাধারণ।

কিভাবে? উদাহরণ দিচ্ছি। শিভাম দুবে। তরুণ অলরাউন্ডার। আইপিএলে খেলছেন ২০১৯ সাল থেকে। দুই মৌসুম কাটিয়েছেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুতে। ২০২১ সালে যোগ দেন রাজস্থান রয়্যালসে। পরের মৌসুমে আসেন চেন্নাই সুপার কিংসে, যারা তাকে রেখে দেয় পরের আসরেও।

আগের দলগুলোতে সেভাবে পারফর্ম করতে পারেননি। তাই আলোচনায়ও আসেননি দুবে। তবে চেন্নাইয়ে যোগ দেয়ার পর তার ভূমিকাটা পাল্টে যায়। প্রতিপক্ষ স্পিনারদের সামলানোর দায়িত্ব দেয়া হয় দুবেকে এবং ব্যাট হাতে স্পিনারদের ওপর চড়াও হওয়ার কাজটা দারুণভাবে সামাল দেন তিনি। দলের পঞ্চম আইপিএল ট্রফি জয়ে রাখেন বড় ভূমিকা।

আইপিএল হয়ে এরপর জাতীয় দলেও ডাক পান শিভাম দুবে। চলতি আইপিএলেও আছেন দারুণ ছন্দে। সবমিলিয়ে চলতি বছরে ব্যাট হাতে দুবের ইনিংসগুলো দেখলে চোখ কপালে উঠবে যে কারো। ধারাবাহিকভাবে রান করছেন তিনি, তাও আবার দুর্দান্ত স্ট্রাইক রেটে। সঙ্গে বল হাতে ভূমিকা তো আছেই।

উদাহরণ টানা যেতে পারে সামির রিজভিরও। ফিনিশার হিসেবে তার কাঁধে দায়িত্ব দিয়েছে চেন্নাই। নিজেকে প্রমাণের সর্বোচ্চ চেষ্টাটাই করে যাচ্ছেন রিজভি।

দুবে কিংবা রিজভিকে তাদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়ার কাজটা আড়াল থেকে পালন করছেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি। তাদের ওপর আস্থা রাখছেন তিনি। কাঁধে হাত রেখে সাহস যোগাচ্ছেন। তার ছোঁয়াতেই অনুপ্রেরণা খুঁজে পাচ্ছেন তরুণ ক্রিকেটাররাও। ধোনির এই ভূমিকাটাই কাজে লাগাচ্ছে চেন্নাই সুপার কিংস।

ইএ