তথ্য-প্রযুক্তি
এআইয়ের ঝুঁকি ও সম্ভাবনা নিয়ে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে আলোচনা
জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ বৃহস্পতিবারের (২১ মার্চ) বৈঠকে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার দিকে মনোযোগ দেবে। বৈঠকে একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়ে মূল্যায়ন করবে যাতে সম্ভাব্য পরিবর্তনশীল প্রযুক্তির সুবিধা এবং অসুবিধাগুলোর ব্যাপারে আন্তর্জাতিক মান নির্ধারণের আহ্বান জানানো হবে।

কয়েক ডজন দেশসহ স্পন্সর করা খসড়া প্রস্তাবটিতে ‘নিরাপদ, সুরক্ষিত এবং বিশ্বস্ত কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবস্থার প্রচারের জন্য’ নির্দেশিকাগুলোর প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছে। এতে সামরিক এআই-কে এই পরিধি থেকে বাইরে রাখা হয়েছে।

সামগ্রিকভাবে প্রস্তাবটি প্রযুক্তির ইতিবাচক সম্ভাবনার ওপর আরও বেশি গুরুত্ব দেয় এবং বিশেষ যত্নের সঙ্গে ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং অন্যান্য ডিজিটাল ডিভাইস গুলোর মধ্যে সেতুবন্ধন গড়ে তোলার’ আহ্বান জানায়।

খসড়া প্রস্তাবটি এই ইস্যুতে প্রথম যুক্তরাষ্ট্র এনেছিল এবং বৃহস্পতিবার বৈঠকে অনুমোদনের জন্য জমা দেওয়া হবে।

২০৩০ সালের মধ্যে মানবতার জন্য একটি সুন্দর ভবিষ্যত নিশ্চিত করার জন্য জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের লক্ষ্যে এআই-তে ‘ডিজিটাল তথ্য হস্তান্তর এবং ন্যায়সঙ্গত সুবিধা প্রদানে বাধা না দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।’

কয়েক ডজনসহ-স্পন্সর দেশের যৌথ বিবৃতি পড়ে জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড বলেছেন, ‘যেহেতু এআই প্রযুক্তির দ্রুত বিকাশ ঘটছে, সদস্য রাষ্ট্রগুলোর জন্য এই সংকটময় মুহূর্তটিকে সম্মিলিত পদক্ষেপের সঙ্গে মোকাবিলা করা জরুরি।’

এওয়াইএইচ