কাঁচাবাজার
বাজার

কোরবানির আগে অস্থির রাজধানীর মসলার বাজার

ঈদুল আজহার আগে অস্থির রাজধানীর মসলার বাজার। ঈদের আগে আজ শেষ শুক্রবার (১৪ জুন) বাজারে বেড়েছে প্রায় সব ধরনের মসলার দাম। এছাড়া কাঁচা মরিচসহ প্রায় সব ধরনের সালাদ তৈরির উপকরণের দামও বেড়েছে।

রান্নার অন্যতম অনুষঙ্গ মসলা। কোরবানির ঈদে বেড়ে যায় এর চাহিদা। সে সুযোগ নিয়ে প্রতি বছর ঈদ এলেই অস্থির হয়ে ওঠে মসলার বাজার। এবারও মসলার দাম অস্বস্তিতে ফেলেছে ক্রেতাদের।

এক মাসের ব্যবধানে বাজারে এলাচ, জিরা, আদা, রসুন ও পেঁয়াজের মতো পণ্যের দাম বেড়েছে প্রায় কয়েকগুণ পর্যন্ত। বাজারে এলাচ বিক্রি হচ্ছে ৩২০০-৩৫০০ টাকা কেজি দরে, লবঙ্গ ১৮০০-২০০০ টাকা, পেঁয়াজ ৮০-৯০ টাকা, রসুন ২০০-২৪০ টাকা এবং আদা বিক্রি হচ্ছে ২৭০-৩০০ টাকা কেজি দরে।

দাম বৃদ্ধির পেছনে বিক্রেতারা বরাবরের মতো সরবরাহ ঘাটতির অজুহাত দিচ্ছেন। ক্রেতারা বলছেন এই বাড়তি দামের বোঝা তাদের বাধ্য করছে সংসারের খরচ কাটছাঁট করতে।

এক বিক্রেতা বলেন, 'যেহেতু ঈদের আগের শেষ শুক্রবার তাই মোটামুটি সব কিছুর দাম একটু বাড়তি। আদা, রসুন বেশি দামে বিক্রি হইতেছে।'

এদিকে সুখবর নেই সবজির বাজারেও, ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে মরিচের দাম। ৬০ টাকার কমে পাওয়া যাচ্ছে না প্রায় কোনো সবজিই। চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় দাম বেড়েছে শসা, গাজর ,লেবু ,টমেটো ,ধনিয়াপাতাসহ সব ধরনের সালাদের উপকরণের দাম। শসা বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা ,গাজর ১১০-১২০ টাকা এবং টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৮০-১০০ টাকা করে।

এক প্রবীণ ক্রেতা বলেন, 'বাজারের কোনো ঠিক-ঠিকানা নাই। এখানে কোনো কিছুই নিয়ন্ত্রণে নাই। একেক দোকানে একেক দাম। মধ্যবিত্তদের জন্য ঢাকা শহরে পরিবার চালানো খুব কষ্টকর হয়ে যায়।'

এদিকে ক্রেতা সংকটে কিছুটা কমেছে মাছ ও মুরগির দাম। বাজারে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৮০-১৮৫ টাকা। লাল লেয়ার মুরগি ৩৫০ টাকা প্রতি কেজি আর কক মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা দরে।

এভিএস

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর