ব্যাংকপাড়া
অর্থনীতি
ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় গ্রাহকের উদ্বেগের কিছু নেই: বাংলাদেশ ব্যাংক
বান্দরবানে স্থানীয় প্রশাসনের নির্দেশে ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচলাক ও মুখপাত্র মেজবাউল হক। আজ বুধবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে এখন টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেন। তিনি বলেছেন, যেসব শাখা থেকে যে টাকা লুট হয়েছে তা নিয়ে গ্রাহকদের উদ্বেগের কিছু নেই। গ্রাহকের আমানতের দায় সম্পূর্ণ ব্যাংকের বলেও জানান তিনি।

মুখপাত্র মেজবাউল হক বলেন, ‘এটি পুরোটাই আইনশৃঙ্খলার বিষয়। বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দেখছে, আমরাও তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। সবমিলিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সেখানে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করছে।’

ব্যাংকের নিরাপত্তার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘প্রতিটি ব্যাংকই নিরাপত্তার বিষয়ে সচেতন। আর যেহেতু এটি আইনশৃঙ্খলার বিষয়, সেখানে স্থানীয় প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী তারা কাজ করছে। পরবর্তীতে পরিস্থিতি বিবেচনা করে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

বান্দরবানে সব ব্যাংকের লেনদেন বন্ধের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘নিরাপত্তার স্বার্থে স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নির্দেশনায় যদি বন্ধ থাকে সেটা তো হতে পারে।’

এদিকে নিরাপত্তার কারণে দুপুর থেকে বান্দরবানের সোনালী ব্যাংকের লেনদেন স্থগিত রয়েছে।

আজ দুপুরে থানচি উপজেলায় সোনালী ও কৃষি ব্যাংকে ডাকাতির চেষ্টা করে নতুন সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ)। এসময় বাজার ঘেরাও করে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে তারা।

আর ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এসময় তিনি বলেন, ‘প্রয়োজনে সেখানে সেনা মোতায়েন করা হবে।’

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে বান্দরবানের রুমায় কেএনএফ সোনালী ব্যাংকে হামলা চালিয়ে টাকা ও ১৪টি অস্ত্র লুট করেছে বলে খবর পাওয়া যায়। অপহরণ করে নিয়ে যায় ব্যাংকের ম্যানেজারকে।

এওয়াইএইচ