উত্তর আমেরিকা
বিদেশে এখন
সূর্যগ্রহণে পর্যটক চাপ সামলাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে কানাডা
সূর্যগ্রহণকে ঘিরে পর্যটক চাপ সামলাতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন নায়াগ্রা জলপ্রপাতের কানাডা অংশের ব্যবসায়ীরা। বিরল এ সূর্যগ্রহণ দেখতে এই অঞ্চলে আসবেন অন্তত ১০ লাখ মানুষ। এ সময় ৩ থেকে ৪ মিনিটের জন্য সূর্য পুরো ঢেকে যাবে।

নায়াগ্রা জলপ্রপাতের আশপাশের বিভিন্ন স্থানে চলছে তোড়জোড়। ব্যবসায়ীদের এতো আয়োজন বছরের সূর্যগ্রহণকে ঘিরে। এখানকার ভিন্তেজ ট্রেনে জনপ্রতি খরচ পড়বে ৪ হাজার ডলার। বিভিন্ন স্থান থেকে পর্যটকদের সূর্যগ্রহণ দেখাতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন নায়াগ্রা জলপ্রপাত এলাকার ব্যবসায়ীরা।

তারা বলেন, বছরে ১ কোটি ৪০ লাখ পর্যটক আসে। সূর্যগ্রহণ ঘিরে একদিনেই ১০ লাখ পর্যটক আসে। এ সময় প্রথমবারের মতো হোটেল-মোটেল ভর্তি থাকবে। শীত মৌসুম আসছে। পর্যটক সমাগম আরও বাড়বে।

১৯৭৯ সালের পর কানাডায় আর ২০১৭ সালের পর যুক্তরাষ্ট্রে এ প্রথম বিরল সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। জীবনে একবার এই বিরল সূর্যগ্রহণ দেখতে হোটেলগুলোর বুকিং বেড়েছে অনেক। যুক্তরাষ্ট্রে এরপর পুরো সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে ২০৪৪ সালে।

প্রতি ১‌৮ মাস পর পর বিশ্বের কোন না কোন স্থানে চাঁদ সূর্যকে পুরোপুরি ঢেকে ফেলার মতো সূর্যগ্রহণের দেখা মেলে। কিন্তু এ পূর্ণগ্রাসের সঙ্গে নায়াগ্রা ফলসে পানির আছড়ে পড়ার শব্দ মিলে সৃষ্টি করবে এক নৈসর্গিক আবহের।

সাউথ প্যাসিফিকে আগামী ৮ এপ্রিল শুরু হবে এই সূর্যগ্রহণ। এরপর দেখা যাবে মেক্সিকোর প্যাসিফিক উপকূলে। এইসময় টেক্সাস আর মাইনে থেকেও দেখা যাবে সূর্যগ্রহণ। এরপর সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে কানাডার ওন্টারিও, কুইবেক, নিউফাউন্ডল্যান্ড এন্ড ল্যাব্রাডর থেকে। সূর্যগ্রহণ উপলক্ষে নায়াগ্রা অঞ্চলের জলপ্রপাতের আশপাশের এলাকায় সবচেয়ে বেশি পর্যটক সমাগম হবে। আসবে মার্কিন পর্যটকরাও।

এভিএস