এশিয়া
বিদেশে এখন
ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস
নির্বাচন ঘিরে পশ্চিমবঙ্গে সরব দলগুলো

ভারতের লোকসভা নির্বাচন সামনে রেখে পশ্চিমবঙ্গে সরব রাজনৈতিক দলগুলো। এদিকে ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস, আটঘাট বেঁধে মাঠে নামতে চায় বিজেপি।

মাস দুয়েকের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে ভারতের লোকসভা নির্বাচন। হাইভোল্টেজ নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা না হলেও সব রাজনৈতিক দল প্রচার প্রস্তুতি শুরু করেছে। সভা, সমাবেশ ও মিছিল-মিটিংয়ে চলছে প্রার্থীদের জমজমাট কথার লড়াই। জনমত জরিপ বলছে, এবারও পশ্চিমবঙ্গে বইবে ঘাসফুল ঝড়। নিরঙ্কুশ জয় নিয়ে ক্ষমতায় ফিরতে পারে তৃণমূলই।

হিসেব বলছে, পশ্চিমবঙ্গে লোকসভার আসন রয়েছে ৪২টি। এসব আসনে বিজেপিকে ছাড় দিতে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেস। আর পশ্চিমবঙ্গে মসনদ ধরে রাখতে মরিয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস।

তৃণমূল কংগ্রেসের মন্ত্রী শশী পাঁজা বলেন, বাংলার মনীষীদের চিরকালই এই বিজেপি নিন্দা করে গেল। পশ্চিমবাংলার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে তারা অস্বীকার করবে।

গেল লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে চলেছিল জোর টক্কর। ২২টি আসন নিয়ে তৃণমূল ক্ষমতায় আসলেও বাংলার ১৮টি আসন দখলে নেয় নরেন্দ্র মোদির বিজেপি। সভা, সমাবেশ ও মিটিং-মিছিলে শাসকদলের সমালোচনার পাশাপাশি ভোটের লড়াইয়েও জয় পেতে মরিয়া বিজেপি।

বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘এই সরকারের লোকেরা অত্যাচার, লুট করছে। এর থেকে বাঁচার কোন রাস্তা নেই। যে সরকার মানুষকে সুবিচার-সুশাসন দেবে, সেই সরকারই যদি লুটপাট করে তাহলে মানুষ যাবে কোথায়?’

লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের মোট ভোটার সংখ্যা ৭ কোটি ৫৩ লাখ ৮৬ হাজার ৭২ জন। গেলবারের চেয়ে ভোটার বেড়েছে প্রায় ১ লাখ ৭৭ হাজার। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে রাজ্যটিতে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক সেনা মোতায়েন করবে নির্বাচন কমিশন।

এওয়াইএইচ