বিদেশে এখন

মার্কিন সিনেটর ও বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের মুখোমুখি বোয়িং সিইও

চলতি বছর কম সময়ের ব্যবধানে বোয়িংয়ের দুটি বিমান দুর্ঘটনার কবলে পড়ার পর নতুন করে তোপের মুখে পড়েছে মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং। মার্কিন কংগ্রেসে সিনেটর ও বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আয়োজিত শুনানিতে তুলোধোনা করা হয় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ডেভিড কালহোনকে। বোয়িংয়ের হয়ে কাজ করে কতো আয় হয়েছে তার, এই প্রশ্নের মুখোমুখিও হতে হয় কালহোনকে। যদিও অভিযোগ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে বিমানের মান উন্নয়নের অঙ্গীকার করেন কালহোন।

২০১৮ সালের অক্টোবরে লায়ন এয়ারের একটি ফ্লাইট উড্ডয়নের মাত্র ১৩ মিনিটের মধ্যে বিধ্বস্ত হয়। মৃত্যু হয় ১৮১ জনের। মাত্র ৬ মাসের ব্যবধানে ২০১৯ সালের মার্চে ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট উড্ডয়নের ৬ মিনিটের মাথায় বিধ্বস্ত হয়। এই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় ১৫৯ যাত্রী ও ক্রু সদস্যের।

দুর্ঘটনা কবলিত দুটি বিমানই ছিল বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স মডেলের। এই সফটওয়্যার সিস্টেমে ত্রুটির কারণে ২০২০ সাল পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী এই বিমানের উড্ডয়ন বন্ধ রাখে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে আবারও দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বোয়িংয়ের বিমান। মাঝ আকাশে দরজা উড়ে যায় আলাস্কা এয়ারলাইন্সের। উড্ডয়নের মাঝে ৩২ হাজার ফিট নিচে নেমে যায় সাউথওয়েস্ট এয়ারলাইন্সের বিমান। দুটি যাত্রীবাহী বিমানই বোয়িংয়ের সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্সের পরবর্তী সংস্করণ।

এই ঘটনায় মার্কিন নীতিনির্ধারকদের মুখোমুখি হতে হয়েছে বোয়িংয়ের প্রধান নির্বাহীকে। কয়েক ঘণ্টা আগেও বিমানে নিরাপত্তা ইস্যুতে ঘাটতি আছে, এই বাস্তবতা মেনে নিয়েছিলেন মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়ের প্রধান নির্বাহী ডেভিড কালহোন।

সংবাদ মাধ্যম বিবিসিকে তিনি বলেন, 'নিরাপত্তা ইস্যু নিয়ে অবগত বোয়িং। নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিখুঁত করা থেকে এখনও অনেক দূরে বোয়িং।' তবে বিমানের নিরাপত্তা নিশ্চিতে বোয়িং কর্তৃপক্ষ কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

এরপরই মার্কিন কংগ্রেসে বিমানের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে না পারায় সিনেটরদের তোপের মুখে পড়েন তিনি। কালহোনকে জিজ্ঞাসা করা হয়, ২০১৮ আর ২০১৯ সালের ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনায় প্রায় সাড়ে ৩শ' মানুষের প্রাণহানি, চলতি বছর বোয়িংয়ের বিমানের একের পর দুর্ঘটনার পরও তিনি কেন এখনও অব্যাহতি দেননি।

২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসে আলাস্কা এয়ারলাইন্সের বিমান উড্ডয়নরত অবস্থায় মাঝ আকাশে দরজা উড়ে যাওয়ার ঘটনার জবাবে ডেভিড কালহোন বলেন, 'আলাস্কা এয়ারলাইন্সের ওই বিমানের ত্রুটি ছিল। যেটা সম্পর্কে কেউ অবগত ছিল না।'

মে মাসে সাউথ ওয়েস্ট এয়ারলাইন্সের একটি বিমান মাঝ আকাশে ৩২ হাজার ফিট নিচে নেমে যাওয়ার ঘটনার প্রশ্ন এড়িয়ে তিনি বলেন, 'সামনের দিনগুলোতে স্বচ্ছতা আর জবাবদিহিতা নিয়ে কাজ করবে কর্তৃপক্ষ।'

যদিও বোয়িংয়ের বিমানের এই দশার জন্য করোনার আঘাত, কর্মী ছাঁটাই আর পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ ছাড়া কর্মী নিয়োগকেও খানিকটা দুষছেন তিনি।

সিনেটে অংশ নেন ২০১৮ আর ২০১৯ সালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের সদস্যরা। শুনানিতে দুর্ঘটনার জন্য নিরাপত্তা ইস্যুতে বোয়িংয়ের গাফিলতিকে দায়ী করেন তারা। সিনেটে শুনানির সময় তারা বলেন, 'বোয়িংয়ের সিইও'র বিরুদ্ধে অপরাধের সাজা ঘোষণা করা উচিত।'

ন্যায়বিচার আদালতের সমালোচনা তারা বলেন, 'এই ক্ষতিপূরণ অপর্যাপ্ত। এই দুর্ঘটনার পর সফটওয়্যার সিস্টেম আপডেটের কাজও করে বোয়িং।'

২০২০ সালে মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়ের প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব নেন ডেভিড কালহোন। সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স মডেলের দুই বিমান বছর ব্যবধানে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনার কবলে পড়ায় ৫ বছর ধরে কঠিন সমালোচনা সামলাচ্ছে বোয়িং।

চলতি বছরের দুই দুর্ঘটনা আরও বিপাকে ফেলেছে বোয়িংকে। এই শুনানির পর বোয়িংয়ের শেয়ারের দর কমেছে ২ শতাংশ। চলতি বছরের শেষে প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিচ্ছেন ডেভিড কালহোন।

ইএ

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর