প্রযুক্তি সংবাদ
তথ্য-প্রযুক্তি

'এআই প্রযুক্তি জলবায়ু লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়ক হবে'

বিশ্বে যত বেশি আধুনিকতার ছোঁয়া লাগছে, ততই বাড়ছে প্রযুক্তি নির্ভরতা। যার জন্য বিদ্যুৎ শক্তির চাহিদাও হচ্ছে ঊর্ধ্বমুখী। যা উৎপাদনে ব্যবহার হচ্ছে কয়েক টন জীবাশ্ম জ্বালানি। জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবিলায় পিছিয়ে পড়ছে বিশ্ব। এ অবস্থায় এআই প্রযুক্তি জলবায়ু লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাধার পরিবর্তে সহায়ক হয়ে উঠবে বলে দাবি করলেন মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস।

জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাবে ধুঁকছে পুরো বিশ্ব। আবহাওয়ার বিরূপ আচরণের সাক্ষী হচ্ছে প্রতিটি দেশ। একদিকে যেমন অসময়ে বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে মানুষের, তেমনি তাপপ্রবাহের মাত্রা দিন দিন বাড়ায় নাজেহাল হচ্ছে জনজীবন।

এ অবস্থায় জলবায়ুর এমন ধাক্কা মোকাবিলায় সবচেয়ে দায়ী জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার কমানোর চেষ্টা চলছে বিশ্বজুড়ে। কিন্তু একইসময় উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় প্রযুক্তি নির্ভরতা বাড়ায় বিদ্যুৎ শক্তির চাহিদাও ঊর্ধ্বমুখী। উৎপাদিত নবায়নযোগ্য জ্বালানি দিয়ে যা মেটানো প্রায় অসম্ভব। তাই জীবাশ্ম জ্বালানির লাগাম টানা যাচ্ছে না কিছুতেই। যার কারণে বিশ্বে প্রথমবারের মতো কার্বন ডাই-অক্সাইড নিঃসরণের পরিমাণ ছাড়িয়েছে ৪০ গিগাটন।

এরমধ্যেই প্রযুক্তি দুনিয়ায় কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) এর আবির্ভাব আরও বেশি ভাবাচ্ছে। অনেক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, এর ব্যবহার বাড়লে আরও বাড়বে বিদ্যুতের চাহিদা। যা নবায়নযোগ্য জ্বালানি দিয়ে মেটানো সম্ভব হবে না। তবে এমন উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস দাবি করলেন, জলবায়ুর প্রভাব মোকাবিলার লক্ষ্য অর্জনে বাঁধার চেয়েও বেশি সহায়ক হয়ে উঠবে এআই। এমনকি কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তায় সাশ্রয় হবে জ্বালানি শক্তি। এমনকি বিদ্যুৎ গ্রিডগুলোকে আরও দক্ষ করে তুলবে ভূমিকা রাখবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স। এছাড়া এর মাধ্যমে বিভিন্ন উদ্ভাবন আগের চেয়েও সহজ হয়ে উঠবে।

বিল গেটস বলেন, 'এ আই অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এটি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই শিক্ষক, ডাক্তার ও বিজ্ঞানীদের ব্যবহার করতে দেখা যায়, যাতে তারা আরও ভালোভাবে কাজ করতে পারেন। এমনকি জলবায়ুর লক্ষ্য অর্জনেও সহায়ক হবে।'

এইআই এবং নবায়নযোগ্য জ্বালানির অগ্রগতি সত্ত্বেও ২০৫০ সালের মধ্যে জলবায়ু লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হবে বলেও সতর্ক করেছেন বিল গেটস। এর জন্য বড় বড় শিল্প-কলকারখানায় জীবাশ্ম জ্বালানি থেকে নবায়নযোগ্য জ্বালানি রূপান্তরের দেড়িকে দায়ী করছেন তিনি।

এদিকে কোনো দেশের সরকার উৎখাত করার উদ্দেশ্যে এআই প্রযুক্তি ব্যবহারের ঝুঁকি নিয়ে বিল গেটস চিন্তিত কি না, তা জানতে চাইলে সাংবাদিকদের তিনি জানান, এ বিষয়ে তার কাছে তেমন কোনো তথ্য নেই। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এটি ভাল মানসিকতা সম্পন্ন লোকজনই ব্যবহার করছেন নিশ্চিত করতে হবে বলে জানান তিনি। সূত্র— গ্লোবাল এনার্জি ও এনার্জি ইনস্টিটিউট

এমএসআরএস

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর