প্রবাস , মুদ্রাবাজার
অর্থনীতি
ঈদের আগে কমেছে প্রবাসী আয়
প্রতি বছর ঈদুল ফিতরের আগে প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়ে। সে হিসেবে চলতি বছরের সদ্য শেষ হওয়া মার্চে এটি কমেছে। গত মাসে বৈধ পথে অর্থাৎ ব্যাংকিং চ্যানেলে দেশে রেমিট্যান্স এসেছে ১৯৯ কোটি ৬৮ লাখ ডলার।

আজ (সোমবার, ১ এপ্রিল) বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ২০২৩ সালের মার্চে দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল ২০২ কোটি ডলার। সে হিসাবে গত বছরের মার্চের তুলনায় চলতি বছরের মার্চে রেমিট্যান্স কমেছে ১.২৩ শতাংশ।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অবৈধ চ্যানেলে বা হুন্ডির কারণে রেমিট্যান্স কমেছে।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দেশে প্রবাসী আয় আসে ২ দশমিক ১৭ বিলিয়ন বা ২১৭ কোটি ডলার। সে হিসাবে ফেব্রুয়ারির তুলনায় মার্চে রেমিট্যান্স কমেছে ৭.৭১ শতাংশের বেশি।

যদিও মাস হিসেবে ফেব্রুয়ারিতে এর আগে কখনও ২ বিলিয়ন ডলার ছাড়ায়নি রেমিট্যান্স। এর আগে একক ফেব্রুয়ারি মাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছিল ২০২১ সালে ১৭৮ কোটি ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের প্রথম মাস অর্থাৎ জানুয়ারিতে ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স আসে ২১০ কোটি ডলার।

সব মিলিয়ে অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে প্রবাসীরা এক হাজার ৭০৫ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন।

দেশের ইতিহাসে ২০২০-২১ অর্থবছরে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছিল। ওই অর্থবছরে প্রবাসীরা ২ হাজার ৪৭৮ কোটি ডলারের সমপরিমাণ অর্থ দেশে পাঠান। গত ২০২২-২৩ অর্থবছরে রেমিট্যান্সের পরিমাণ ছিল ২ হাজার ১৬১ কোটি ডলার।

এমএসআরএস