দেশে এখন

উত্তরে ৬, দক্ষিণে ২৪ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারনের আশ্বাস

এবারও ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে দ্রুত সময়ের মধ্যে কোরবানির বর্জ্য অপসারণের পদক্ষেপ গ্রহণ করার কথা জানিয়েছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন। উত্তর সিটি'র (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম ঘোষণা দিয়েছেন, কোরবানির পর ৬ ঘণ্টার মধ্যে তারা বর্জ্য অপসারণের কাজ শেষ করবেন। অন্যদিকে দক্ষিণ সিটি'র (ডিএসসিসি) মেয়র ফজলে নূর তাপস জানিয়েছেন, তারা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করবেন।

ডিএনসিসির নিজ অর্থায়নে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সংযোজন হওয়া নতুন ৩২টি ডাম্পট্রাক ও ৮টি কম্প্যাক্টর ট্রাক কার্যক্রম উদ্বোধনে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে কোরবানির বর্জ্য অপসারণে নিয়োজিত কর্মকর্তা, কর্মচারীদের পাশাপাশি মেয়র আতিক নিজেও মাঠে থাকবেন বলে জানান।

জাপান ও ভারত থেকে ৩০ কোটি টাকায় কেনা এই গাড়ি যুক্ত হওয়ায় ৩৫০ টন বর্জ্য অপসারণের সক্ষমতা বেড়েছে ডিএনসিসি'র। যেসব গাড়ি ম্যানেজের জন্য থাকবে আলাদা সফটওয়্যার।

এছাড়াও যারা কোরবানি দেবে তাদের জন্য ১০ লাখ ৪০ হাজার পরিবেশবান্ধব পলিব্যাগ দেওয়ার পাশাপাশি ৯৫০০ পরিচ্ছন্ন কর্মী কাজ করবে ঈদের দিন।

এদিকে সকালে জাতীয় ঈদগাহ এর সার্বিক প্রস্তুতি পরিদর্শনে আসেন ঢাকা দক্ষিন সিটি মেয়র ফজলে নূর তাপস। ভারী বৃষ্টির কথা মাথায় রেখে ঈদ প্রস্তুতি রাখা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ৩৫ হাজার মুসল্লি একসাথে জামায়াত আদায় করতে পারবেন। আর নারীদের জন্য থাকবে আলাদা ব্যবস্থা।

যত্রতত্র ময়লা না ফেলার আহবান জানিয়ে বর্জ্য অপসারণের স্বার্থে দুই দিনের মধ্যে ঢাকাবাসীকে কোরবানির সম্পন্ন করারও আহবান জানান দুই মেয়র। মূল সড়কে যাতে হাট না বসে সেজন্য সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের পাশাপাশি জামানত বাজেয়াপ্ত এবং শাস্তিমূলক ব্যবস্থার কথাও জানানো হয়।

তিনি বলেন, 'বর্জ্য অপসারণে নতুন যন্ত্রপাতি কেনা হয়েছে। এবার আমাদের বহর অত্যন্ত সমৃদ্ধ। আমরা সুষ্ঠু ভাবে বর্জ্য অপসারণ করতে পারবো।' ঈদের দিন ২ টা থেকে বর্জ্য অপসারণ শুরু হবে।' 

ঈদের প্রথম জামাত সাড়ে ৭ টায় হবে। ঈদের দিন বৃষ্টির শঙ্কা আছে। তাই সেভাবেই প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানান মেয়র। বৃষ্টির জন্য যেন বিবৃতকর পরিস্থিতি তৈরি না হয় সেই ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানান। বলেন, জলাবদ্ধতা যাতে না হয় সেই ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মেয়র আরও বলেন, 'এবার একসঙ্গে ৩৫ হাজার মুসল্লি একসাথে নামাজ পড়তে পারবেন। মহিলাদের জন্য, কুটনৈতিকদের জন্য নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে।' 

ইএ

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর