দেশে এখন

সদরঘাটে একাধিক লঞ্চের রেষারেষি, দড়ি ছিঁড়ে ৫ জনের মৃত্যু

রাজধানীর সদরঘাট টার্মিনালে একাধিক লঞ্চের ধাক্কাধাক্কিতে একটি লঞ্চের দড়ি ছিঁড়ে ঘটনাস্থলেই ৫ যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

আজ (বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল) বিকেল তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তাশরিফ-৪ লঞ্চকে ধাক্কা দেয় এম ভি ফারহান-৬। এসময় তাশরিফ-৪ লঞ্চের দড়ি ছিঁড়ে যায়। আর সেই দড়ির আঘাতে বেশ কয়েকজন আহত ও নিহত হন।

নৌ-পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, পাঁচজনকে উদ্ধার করে মিডফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পর ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতদের মধ্যে একজন নারী ও একজন শিশু। এদের মধ্যে একজন হকার নিহত হয়েছেন।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, ফারহান-৬ লঞ্চ ধাক্কা দেওয়ার পর পরই পল্টুন ছেড়ে চলে যায়।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সর কর্মকর্তা ফয়সাল বলেন, 'পল্টুনে আমাদের একটা কন্ট্রোল রুম আছে। আমাদের ফায়ার সার্ভিস, ডুবুরি ও রেসকিউ টিম এখানে সবসময় ডিউটি করছে। আনুমানিক ২:৫৪ মিনিটের সময় পল্টুনে প্রচন্ড একটা ধাক্কা লাগে। সাথে সাথে এম ভি তাশরিফ-৪ এর পল্টুনে বেঁধে থাকা দড়ি ছিঁড়ে যাওয়ার ফলে যাত্রী যে সিঁড়ি দিয়ে লঞ্চে উঠে তা সরে যায় এবং যাত্রীরা পরে যায়।

তাশরিফ-৪ ও এম ভি ফারহান-৬ লঞ্চের রুট পারমিট বাতিল করা হয়েছে। লঞ্চ দুটির ৪ চালকসহ ৫ জনকে আটক করা হয়। ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

বিআইডব্লিউটিএ'র পরিচালক (ক্রয় ও সংরক্ষণ) মো. রফিকুল ইসলাম কমিটির আহ্বায়ক এবং নৌ সংরক্ষণ ও পরিচালন বিভাগের যুগ্ম পরিচালক মো. জগর আলী ও বন্দর শাখার যুগ্ম পরিচালক মো. কবীর হোসেন তদন্ত কমিটির সদস্য করা হয়েছে।

এই কমিটি আগামী পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে বিআইডব্লিউটিএ'র চেয়ারম্যানের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন পেশ করবে বলে আজ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এসএসএস
আরও পড়ুন:

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর