দেশে এখন
শিক্ষা

এসএসসি পরীক্ষা দেরিতে শুরু করায় শিক্ষার্থী ও অভিবাবকদের বিক্ষোভ

শেরপুরে আধাঘন্টা পর এসএসসি পরীক্ষা শুরু করা হয়েছে, কেন্দ্রে শিক্ষকদের অসহযোগিতাসহ নানা অভিযোগে শেরপুর মডেল গার্লস ইনিস্টিটিউট কেন্দ্রে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা বিক্ষোভ করেছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মডেল গার্লস কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ওই কেন্দ্রে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে পরীক্ষা কক্ষের দায়িত্বে থাকা সবাইকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

শেরপুর মডেল গার্লস ইনিস্টিটিউটের ২০১ নম্বর কক্ষের ৪৯জন পরীক্ষার্থীর অভিযোগ, বাংলা পরীক্ষা যথা সময়ে শুরু না হয়ে ৩০মিনিট পর শুরু হয়। এরপর বাড়তি সময় না দিয়ে সঠিক সময়ে খাতা জমা নেয়া হয়। এজন্য ৪৯ জন পরীক্ষার্থীর কেউ পুরো নাম্বারের উত্তর লিখতে পারেনি। অথচ প্রশ্নপত্র সরবরাহ করার পর তাদের পরীক্ষা সমাপ্তির সময় ৩০মিনিট অতিরিক্ত দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় ওই কক্ষের দায়িত্বে থাকা নাজির আহাম্মেদ ও শাহাদাত হোসেন নামে দুই শিক্ষক। এছাড়া ওই কেন্দ্রের দায়িত্বরত শিক্ষকদের নানা অসহযোগিতার অভিযোগ করেন তারা।

অভিভাবকরা জানান, বাংলা পরীক্ষার দিন ২০১ নম্বর কক্ষের দুই শিক্ষক দায়িত্বে অবহেলা করে আধাঘন্টা সময় নষ্ট করে ৪৯ জন শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তায় ফেলে দিয়েছেন। যাদের অবহেলায় শিক্ষার্থীদের এমন হয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন তারা।

শেরপুর মডেল গার্লস ইনিস্টিটিউট কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা কেন্দ্র সচিব এমদাদুল ইসলাম বলেন, 'প্রশ্ন ও খাতাপত্র হলগুলোতে পৌঁছাতে সামান্য দেরি হয়। তবে, আধাঘন্টা দেরির বিষয়টি সঠিক নয়।'

সদর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. চাঁন মিয়া বলেন, 'আমি কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি। বিষয়টি তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'

জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল খায়রুম বলেন, 'বিষয়টি নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। তদন্ত কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে, প্রাথমিকভাবে ওই কক্ষের দায়িত্বে থাকা সবাইকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।'

শেরপুর মডেল গার্লস ইনস্টিটিউট কেন্দ্রে এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৭৪৯ জন।

এমএসআরএস

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর