দেশে এখন
ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণ
শ্রমিক-কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলের ২৫ কোটি ২২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের করা মামলায় নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণ করেছেন আদালত।

আজ (মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল) ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ আস সামছ জগলুল হোসেনের আদালত শুনানি শেষে এ চার্জশিট গ্রহণ করেন। এদিন আসামি মো. শাহজাহান আদালতে উপস্থিত না হওয়ায় আদালত তার জামিন বাতিল করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

আগামী ২ মে মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত। একইসঙ্গে মামলাটি বিশেষ জজ আদালত-৪ এ বদলি করা হয়েছে।

এর আগে দুপুরে ড. ইউনূসসহ গ্রামীণ টেলিকমের সাবেক ১৩ কর্মকর্তা দুদকের করা মামলায় হাজির হন ঢাকা মহানগর আদালতে।

অর্থ আত্মসাৎ ও বিদেশে পাচারের অভিযোগে করা দুদকের মামলা গ্রহণ করে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর জন্য ২ মে দিন ধার্য করেন বিচারক। এ পর্যন্ত সব আসামি জামিনে থাকবেন। ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে বলেই মামলা আমলে নেয়া হয়েছে।

আদালত থেকে বের হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ড. ইউনূস। মামলা নিয়ে অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, 'দেশে কোনো আইনের শাসন নেই। বর্তমান পরিস্থিতি থেকে বের হওয়ার পথ অবশ্যই খুঁজতে হবে।'

আর তার আইনজীবী বলছেন, মামলা আইনিভাবে মোকাবেলা করা হবে।

এখন পর্যন্ত কোনো মামলায় গ্রেপ্তার হননি ড. ইউনূস। শ্রম আদালতে দণ্ডিত হলেও কারাগারে যেতে হয়নি। সব মামলায় রয়েছেন জামিনে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি আদালতে ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান।

এমএসআরএস