প্রবাস
মৃতদেহ পরিবহনে খরচ কমছে ৫০ শতাংশ
কাতার প্রবাসী বাংলাদেশিদের মৃতদেহ পরিবহনে ৫০ শতাংশ খরচ কমানোর ঘোষণা দিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। আগে মৃতদেহ পরিবহনে এক লাখ ২০ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা নিলেও এখন খরচ পড়বে ৬০ থেকে ৬৫ হাজার। বিমানের এমন উদ্যোগকে স্বাগতম জানিয়েছেন প্রবাসীরা।

বিদেশ থেকে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতিতে বড় অবদান রাখছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। কিন্তু এইসব রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের কোনো কারণে প্রবাসে মৃত্যু হলে মৃতদেহ দেশে নেয়া নিয়ে তৈরি হয় বড় জটিলতা।

মৃতদেহ পরিবহনে বিমানের টিকেটের দাম বেশি হওয়ায় খরচ বহন করতে না পেরে অনেক সময় বাধ্য হয়ে লাশ কাতারে দাফন করতে হয়। তবে এখন থেকে মৃতদেহ পরিবহনে বিমানের টিকেটের দাম ৫০ শতাংশ কমানোর কথা জানালেন কাতারে বিমানের কান্ট্রি ম্যানেজার মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন।

তিনি বলেন, 'আগে যেখানে ৩ হাজার ৬০০ থেকে ৩ হাজার ৮০০ রিয়ালের মতো খরচ আসতো বর্তমানে সেটা ১ হাজার ৮০০ থেকে ১ হাজার ৮৫০ রিয়ালে কমে আসবে। আশা করি আমরা ভবিষ্যতে আরও নতুন নতুন সেবা যোগ করতে পারবো।'

বিমানের এমন উদ্যোগকে স্বাগতম জানিয়েছেন প্রবাসীরা। বলছেন, এর ফলে অনেকে পরিবারই তার স্বজনের মৃতদেহ দেশে নেবার সুযোগ যাবেন।

একজন প্রবাসী বাংলাদেশি বলেন, 'এর আগে এমন অনেক হয়েছে যে, এখানে প্রবাসীরা মারা গেলেও লাশটা দেশে যায়নি। এটা ফ্রি করে দিলে অনেক ভালো হতো। তবে ৫০ মতাংশ যেহেতু কমিয়েছে, এতেই আমরা অনেক খুশি।'

তবে, প্রবাসীদের দাবি, প্রবাসে মৃত্যুবরণ করা শ্রমিকদের মৃতদেহ বিনা খরচে বহন করুক রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বিমান।

এমএসআরএস