দেশে এখন
বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতা কর্মসূচি নীতিমালার খসড়া অনুমোদন
আয়ের সীমা শিথিল করে 'বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতা কর্মসূচি বাস্তবায়ন নীতিমালা, ২০২৪' এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

আজ (সোমবার, ১ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। মন্ত্রিসভা বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, 'বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হলো সরকারের একটি বড় সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি। ১৯৯৮-৯৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটি শুরু করেন। ২০২৪-২৫ অর্থবছরে এ খাতে মাসিক ৫৫০ টাকা করে মোট ২৫ লাখ ৭৫ হাজার জনকে ভাতা দেয়া হয়।'

এসব নীতিমালায় কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে আজকের মন্ত্রীসভা বেঠকে। এ কথা জানিয়ে মাহবুব হোসেন বলেন, 'আগের নীতিমালা অনুযায়ী, যার বাৎসরিক আয় ১২ হাজার টাকার নিচে ছিল তারা এ ভাতা পেত। তা বাড়িয়ে এখন ১৫ হাজার টাকা করা হয়েছে। অর্থাৎ যারা বছরে ১৫ হাজার টাকার কম আয় করবেন তারা এ ভাতার আওতায় আসবেন।'

অনুমোদিত নতুন নীতিমালা অনুযায়ী, মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ভাতা দেয়াটা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। এর বাছাই প্রক্রিয়া অনলাইনে হবে।

এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, 'আগে পরীক্ষামূলকভাবে ম্যানেজমেন্ট নেটওয়ার্ক সিস্টেমের মাধ্যমে অনলাইনে বাছাইয়ের যে ব্যবস্থা করা হয়েছিল, সেটি এই নীতিমালায় প্রাতিষ্ঠানিক করা হয়েছে। অনলাইনে আবেদন নেয়া হবে এবং অনলাইনে বাছাই প্রক্রিয়া চলবে। ওখানে একটা যাচাই-বছাই সিস্টেম থাকবে, সেখানে যারা নির্বাচিত হবেন তারাই ভাতা পাবেন।'

এমএসআরএস