ছাড়
বাজার
হবিগঞ্জে মাসে ২ কোটি টাকার মার্সেল পণ্য বিক্রি
হবিগঞ্জে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে মার্সেল ইলেকট্রনিক্স পণ্য। গুণগত মান, কিস্তি, ডিসকাউন্ট আর দীর্ঘমেয়াদী ওয়ারেন্টি সুবিধার কারণে মার্সেল পণ্যের প্রতি আগ্রহ বাড়ছে ক্রেতাদের। হবিগঞ্জ জেলায় ১৭টি শোরুমে প্রতিমাসে বিক্রি হচ্ছে অন্তত ২ কোটি টাকার বেশি পণ্য।

হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলা সদরের জনি ইলেকট্রনিক্স। সুসজ্জিত এই শোরুমে টিভি, ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন, এয়ারকন্ডিশনার, ফ্যান, ওভেন, রাইস কুকার, ব্লেন্ডারসহ পাওয়া যাচ্ছে মার্সেলের ৩০টির বেশি পণ্য।

গুণগত মান, কিস্তি সুবিধা, ডিসকাউন্ট আর দীর্ঘমেয়াদী ওয়ারেন্টির কারণে মার্সেলের প্রতি ক্রেতাদের আগ্রহ বাড়ছে।

ক্রেতাদের সেবা নিশ্চিতে নতুন পণ্যের সংযোজনের পাশপাশি জনি ইলেকট্রনিক্স দিচ্ছে ২৪ ঘণ্টার হোম রিপ্লেসমেন্ট সার্ভিস।

হবিগঞ্জের জনি ইলেকট্রনিক্স স্বত্বাধিকারী আনোয়ার পারভেজ জনি বলেন, 'মার্সেল মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে দাম রেখেছে। এই কারণে আমাদের বিক্রি অনেক বেশি। কোম্পানি সারাবছর বিভিন্ন ক্যাম্পেইন চালু রাখে। বর্তমানে ঈদ উপলক্ষে ১০ লাখ টাকার মিলিয়নিয়ার অফার চলছে।'

জেলায় মার্সেল ইলেকট্রনিক্সের মোট ১৭টি শোরুম রয়েছে। যেখানে মাসে দুই কোটি টাকার বেশি পণ্য বিক্রি হয়।

হবিগঞ্জের মার্সেল ইলেকট্রনিক্সের উপ-সহকারী পরিচালক রাজিব চন্দ্র সাহা বলেন, 'বাজারে প্রোডাক্ট অনেক আছে কিন্তু গুণগত মান, সার্ভিস সব কিছু চিন্তা করে আমাদের ক্রেতাকে শতভাগ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। মার্সেলের প্রোডাক্ট কিনে ক্রেতারা খুশি। তারা কম দামে ভালো মানের প্রোডাক্ট পাচ্ছে।'

বর্তমানে দেশিয় এই প্রতিষ্ঠানের ৫০০টির বেশি পণ্য রয়েছে। আন্তর্জাতিক গুণগত মান নিশ্চিত করে যা রপ্তানি হয় ৫০টি দেশে।

ইএ