পরিষেবা
অর্থনীতি
আজ থেকে ব্যাংকে পাওয়া যাচ্ছে নতুন টাকা
ঈদ উপলক্ষে আজ রোববার (৩১ মার্চ) থেকে শুরু হয়েছে নতুন টাকা বিনিময়। এজন্য ব্যাংকের নির্ধারিত শাখায় নতুন বুথও খোলা হয়েছে। এবার মোট ১০৬ কোটি ৫৬ লাখ টাকার নতুন নোট ছেড়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে এবার নিরাপত্তার কারণে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে নতুন টাকা না দেয়ায় ব্যাংকগুলোতে গ্রাহকের চাপ বেড়েছে।

নতুন টাকার ছন্দ কি? প্রশ্ন করতেই ছোটবেলায় ফিরে যান অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম। আর আনোয়ার হোসেন এখনও পরিবারে পুরনো স্মৃতি আর আনন্দ ফিরিয়ে আনেন নতুন টাকায়। ঈদে বকশিস, সালামী, উপহার, কেনাকাটা কিংবা বিনিময়ের আনন্দ কয়েক মুহূর্তে বেড়ে যায় নতুন টাকা হাতে আসলে। তাই বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরীজীবী শামিমা টপি মহাখালী থেকে ব্যাংকে ছুটে আসেন।

শুধুই কি ঈদ, জাকাত-ফিতরাও হিসাবের খাতায় আছে। যা কারো কারো কাছে ঈদ এলেই ধরা দেয়। বছরের দুটি ঈদে তাই পুরনো টাকার বিনিময়ে নতুন টাকার চাহিদা থাকে বেশি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী, আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত প্রতিদিন ১৩ কোটি ৩২ লাখ টাকার নতুন নোট বিতরণ করা হবে। একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ সাড়ে ১৮ হাজার টাকা তুলতে পারবেন।

ঈদ উপলক্ষে সাধারণ দিনের তুলনায় ব্যাংকগুলোতে লেনদেনের চাপ বেড়েছে ৪ থেকে ৫ গুণ বেশি। ফলে নতুন টাকা সরবরাহের চাপ সামাল দিতে অনুমোদিত শাখায় নতুন নোট সরবরাহে কাউন্টার চালু করেছে ব্যাংকগুলো।

সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়া ব্যাংকের নির্ধারিত শাখায় ৫, ১০, ২০, ৫০ ও ১০০ টাকার নোট সংগ্রহ করা যাবে। একজন ব্যক্তি একবারই নতুন নোট সংগ্রহ করার সুযোগ পাবেন। গত বছর ৪০টি শাখার মাধ্যমে নতুন নোট বিতরণ করা হলেও এবার ৮০টি শাখার মাধ্যমে বিতরণ করা হচ্ছে নতুন টাকা।

এওয়াইএইচ