প্রবাস
বিদেশে এখন
মালয়েশিয়া থেকে আড়াই হাজার অবৈধ বাংলাদেশি ফিরলেন
মালয়েশিয়ায় থাকা অবৈধ অভিবাসীদের জন্য সাধারণ ক্ষমার কর্মসূচি চালু করেছে দেশটির সরকার। এরইমধ্যে গত ১ মার্চ থেকে শুরু হওয়া এ প্রকল্পের অধীনে ২ হাজার ৫৩০ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন।

বিদেশি কর্মীনির্ভর মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে বৈধ বিদেশি কর্মীর ২১ লাখ। বিভিন্ন কারণে অবৈধ বিদেশির সংখ্যাও কম নয়। তবে সেসব বিদেশিরা পাচ্ছেন সাধারণ ক্ষমা। যা চলতি বছরের ১ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে, চলবে ডিসেম্বর পর্যন্ত। এ প্রকল্পের অধীনে আত্মসমর্পণ করে সর্বোচ্চ ৫শ' রিঙ্গিত জরিমানা দিয়ে দেশে ফেরার সুযোগ পাচ্ছেন অবৈধ অভিবাসীরা।

প্রত্যাবাসন প্রকল্পের সবশেষ তথ্য নিয়ে শুক্রবার গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি জানান, ২১ মার্চ পর্যন্ত ১৯ হাজার ৫১৫ বিদেশি জরিমানা দিয়েছে, যার পরিমাণ প্রায় ৯৫ লাখ রিঙ্গিত।

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন নাসুশন ইসমাইল বলেন, ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রত্যাবাসনের জন্য অবশ্যই স্বশরীরে উপস্থিত হতে হবে। নির্ধারিত জরিমানা পরিশোধ করার পর তারা ফিরে যেতে পারবেন। আমরা তাদের বিরুদ্ধে অভিবাসন আইন এবং পাসপোর্ট আইনের অধীনে ব্যবস্থা নেব না ফলে তাদের কারাভোগ করতে হবে না।

এ প্রকল্পের অধীনে ৪ লাখ অবৈধ বিদেশি নিজ দেশে ফিরে যাবে বলে আশা করছে দেশটির সরকার। অভিবাসন বিভাগের সবশেষ তথ্যমতে, দেশটি থেকে প্রত্যাবাসন করেছেন প্রায় ১২ হাজার বিদেশি যেখানে বাংলাদেশির সংখ্যা ২ হাজার ৫৩০ জন। দীর্ঘদিন কর্মহীন থেকে অবৈধ হয়ে পড়া বহু প্রবাসী এ সুযোগ পেয়ে নিজ দেশে ফিরছেন।

এক প্রবাসী বাংলাদেশি বলেন, ‘যারা মালয়েশিয়ায় দীর্ঘদিন বেকার ছিলো। পরিবারের কাছ থেকে টাকা নিয়ে কষ্টে থাকতো, তারা এই সুযোগে দেশে ফিরে যাচ্ছেন।’

তবে যারা আটক কিংবা বিচারাধীন আছেন তারা এ সুযোগ পাচ্ছেন না। এদিকে কোন তৃতীয় পক্ষের সহায়তা ছাড়াই ফ্লাইট টিকিট ও ট্রাভেল নথি নিয়ে অভিবাসন অফিসে আত্মসমপর্ণের আহ্বান জানিয়েছে অভিবাসন মহাপরিচালক।

এওয়াইএইচ