আমদানি-রপ্তানি
অর্থনীতি
ভারতের ওপর দিয়ে ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আনবে বাংলাদেশ
ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির কথা জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। এ বিষয়ে আলোচনা এগিয়েছে বলেও জানান তিনি। রোববার (২৪ মার্চ) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ সরকারের আমন্ত্রণে আগামীকাল (২৫ মার্চ) চার দিনের সফরে ঢাকায় আসছেন ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগেল ওয়াংচুক। তার সফরে দেশটির সঙ্গে তিনটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করবে বাংলাদেশ। এছাড়া সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে সহযোগিতা সংক্রান্ত একটি চুক্তিও নবায়ন করা হবে।

ভুটান রাজার বাংলাদেশ সফর নিয়ে আয়োজন করা হয় সংবাদ সম্মেলনের। সেখানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি করা হবে। সেই আলোচনা এগিয়েছে। ভারতের ওপর দিয়ে এই বিদ্যুৎ যেহেতু আনা হবে, তা তাদের সঙ্গেও আলোচনা চলছে। ত্রিপক্ষীয় একটা চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনা আছে।’

নেপালের সঙ্গে জলবিদ্যুৎ আমদানির জন্য ট্যারিফ নির্ধারণ হয়ে গেছে বলেও জানান ড. হাছান মাহমুদ।

ভুটানের রাজার সফরে নতুন করে তিনটা সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ভুটানকে কুড়িগ্রামে বিশেষ একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব করা হয়েছে। দেশটির পক্ষ থেকে ১৯০ একর জায়গা চাওয়া হয়েছিল। তাই অর্থনৈতিক অঞ্চল করার জন্য কুড়িগ্রামে ১৯০ একর জায়গাই ভুটানকে প্রস্তাব করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘এছাড়া ভুটানের থিম্পুতে একটি বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট প্রতিষ্ঠা এবং ভোক্তা সুরক্ষায় প্রযুক্তিগত সহযোগিতা বিষয়ক। এছাড়া সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে সহযোগিতা সংক্রান্ত একটি চুক্তি আছে আমাদের সঙ্গে সেটার নবায়ন করা হবে।’

এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিএনপির সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, 'গত নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার জন্য বিএনপির অনেকেই লাইন দিয়েছিল। আমার বক্তব্যে তারা আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারে। রমজান মাসে বিএনপির ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দেয়ার মূল উদ্দেশ্য বাজারকে অস্থিতিশীল করা।'

ভুটানের রাজা ২৫-২৮ মার্চ বাংলাদেশ সফর করবেন। সফরে তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে অংশগ্রহণ করবেন। সোমবার সকালে বিমানবন্দরে ভুটানের রাজাকে স্বাগত জানাবেন রাষ্ট্রপতি। বিমানবন্দরে তাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হবে।

এভিএস