এশিয়া
বিদেশে এখন
পেঁয়াজের পর পশ্চিমবঙ্গে লাগামহীন রসুনের দর
গেল কয়েকমাস ধরে পশ্চিমবঙ্গে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে রসুনের দাম। রাজ্যটিতে প্রতি কেজি বড় আকারের রসুন বিক্রি হচ্ছে ৫০০ রুপিতে আর ছোট আকারের রসুনের দাম সাড়ে ৩০০ রুপি। ব্যবসায়ীরা বলছেন, চলতি মৌসুমে অতিবৃষ্টির কারণে ফলন কম হওয়ায় তৈরি হয়েছে সংকট।

পেঁয়াজের পর এবার পশ্চিমবঙ্গে আকাশ ছুঁয়েছে রসুনের দর। এতে করে রসুন কিনতে চাপে ক্রেতারা। অনেকেই রসুনের বদলে কিনছেন প্যাকেটজাত বাটা রসুন।

ভোক্তারা বলেন, 'রসুনের দামটা বেশি হওয়াতে রসুনের ব্যবহারটা কমে গেছে।'

আরেকজন বলেন, 'এখন বাঙালি তো মাছ মাংস ছাড়া খেতেই পারে না, কিন্তু রসুনের যা পরিস্থিতি বেশিরভাগই রসুনের পেস্ট কিনছে বাজার থেকে।'

বিক্রেতারা বলছেন, বাজারে পর্যাপ্ত রসুন না থাকায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে দাম। অতিবৃষ্টির কারণে চলতি মৌসুমে রসুনের ফলন কমেছে। বৈরি আবহাওয়ায় অনেক চাষিই তাদের জমিতে এবার রসুন আবাদ করেননি। এতে বাজারে তৈরি হয়েছে সংকট।

রসুন চাষী বলেন, 'ফলনের ঘাটতি হয়েছিল তাছাড়া অনেক রসুন রাখতে পারেনি বৃষ্টির জন্য। আমরা তো চাষি মানুষ, আশা করছি নতুন দানা উঠলে দামটা কমবে।'

বাজারে নতুন রসুন এলে দাম আবার ক্রেতাদের নাগালে চলে আসবে বলে আশা করছেন বিক্রেতাদের।

ইএ