প্রবাস

আমিরাতের স্থানীয়দের আস্থার নাম বাংলাদেশি

একইসঙ্গে গ্রীষ্মকাল ও ঈদুল আজহা ঘনিয়ে আসায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের গাড়ি মেরামতের দোকানগুলোতে বেড়েছে কর্মব্যস্ততা। এ অবস্থায় বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় গাড়ি মেরামত ও যন্ত্রাংশের দোকানগুলোর ব্যবসায়ীদের আয়ও বেড়েছে। এমনকি গাড়ি মেরামতের দোকানে কাজ করা কর্মীদের বাড়তি আয় হচ্ছে।

দিন গড়িয়ে রাত হলেও দম ফেলার ফুরসত নেই আমিরাতের গাড়ি মেরামত ও যন্ত্রাংশের দোকানগুলোয়। যেখানে কাজ করে দেশের রেমিট্যান্সের চাকা সচলে অবদান রাখছেন বহু প্রবাসী বাংলাদেশি।

একদিকে মরুর দেশটিতে ক্রমাগতভাবে গরমের তীব্রতা বৃদ্ধি, অন্যদিকে ঈদ ঘনিয়ে আসায় গাড়ি মেরামতে কর্মব্যস্ততা বেড়েছে কয়েকগুণ। রাত-দিন সমান তালে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন কাজ।

একজন মেরামতকারী বলেন, 'ঈদে শপিংয়ের জন্য মানুষের যেমন ব্যস্ততা থাকে, তেমনই এখানে গাড়ির কাজ করার জন্য বেশি ব্যস্ততা থাকে।'

আরব আমিরাতে স্থানীয় নাগরিক থেকে অভিবাসীদের প্রায় প্রত্যেকের নিত্যদিনের সঙ্গী গাড়ি। তাই এই খাতটি অনেক ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তার ভরসার বিনিয়োগের জায়গা হয়ে উঠেছে। আজমান প্রদেশের শিল্প এলাকায় দেখা মিলে সারি সারি যন্ত্রাংশ ও গাড়ি মেরামতের দোকান। বাংলাদেশিরা কোনো কোনো দোকানের মালিক আবার কোনোটিতে কাজ করছেন কর্মী হিসেবে।

অন্য শহরের তুলনায় এই প্রদেশে গাড়ি মেরামতের খরচ কম বলে দাবি করছেন কর্মীরা। দোকান ভাড়া তুলনামূলক কম হওয়ায় মেরামতের কাজও করতে পারেন সস্তায়। তাই প্রবাসীদের পাশাপাশি স্থানীয়রাও ছুটে আসেন এখানে।

একজন মেরামতকারী বলেন, 'আমরা এখানে সবকিছুর দাম কম রাখি। সেজন্য আমাদের দোকানগুলোতে সবাই আসে।'

দীর্ঘদিন ধরে দেশটিতে এই পেশায় নিয়োজিত শ্রমিকের সংখ্যা কম নয়। তবে সময়ের সাথে এই খাতে উদ্যোক্তা বাড়ায় কর্মীর চাহিদাও বাড়ছে সমান তালে।

এমএসআরএস

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর