আমদানি-রপ্তানি
অর্থনীতি
আমদানি-রপ্তানি আইনের খসড়ার নীতিগত অনুমোদন
আমদানি ও রপ্তানি আইন, ২০২৪ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এতে বাণিজ্যিকভাবে সেবা কার্যক্রম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। নতুন আইন অনুযায়ী, সেবা আমদানি ও রপ্তানির ক্ষেত্রে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন লাগবে।

আজ (সোমবার, ১ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে নতুন আইনের খসড়ার অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এতে সভাপতিত্ব করেন।

নতুন আইনে ‘সেবা’ বলতে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার সংজ্ঞা অনুযায়ী যেগুলো সেবা, কেবল সেগুলোই যুক্ত হবে এখানে। আগে অধ্যাদেশে শুধু পণ্য ছিল। কোনো পণ্য বা সেবা প্রয়োজন বুঝে নিয়ন্ত্রণ ও নিষিদ্ধ করতে পারবে সরকার।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘আমদানি ও রপ্তানি নিয়ন্ত্রণ ও নিষিদ্ধকরণের ১৯৫০ সালের আইন আছে। পুরোনো আইনগুলো পর্যায়ক্রমে যুগোপযোগী করার নির্দেশনা আছে। এজন্য নতুন আইনের খসড়া করা হয়েছে।’

আসু