দেশে এখন
বাড্ডা থেকে ১৯ হাজার কেজি সরকারি চাল জব্দ
রাজধানীর মেরুল বাড্ডা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৯ হাজার কেজি সরকারি চাল জব্দ করা হয়েছে। এ সময় চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে সাতজনকে আটক করেছে বাড্ডা থানা পুলিশ।

রোববার (৩১ মার্চ) রাতে বাড্ডা থানাধীন মেরুল কাঁচাবাজার সংলগ্ন ইখতিয়ারের সেমি পাকা ঘরে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, খাদ্য অধিদপ্তরের লোগো সংযুক্ত বস্তা থেকে খুলে নুরজাহান ব্রান্ড নামক কোম্পানির প্লাস্টিকের বস্তায় চাল ভরা হচ্ছিল। এ সময় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে হাতেনাতে সাত জনকে আটক করা হয়।

খাদ্য অধিদপ্তরের বিভিন্ন কর্মসূচির এই চাল চোরাচালান করে বিভিন্ন নামে বাজারে বিক্রি করতো অসাধু এই প্রতিষ্ঠান। পুলিশের ধারণা, চোরাচালানে অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের যোগসূত্র রয়েছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান বিভাগের বাড্ডা জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) রাজন কুমার সাহা জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে বাড্ডা পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই নাদিম মাহমুদ জানতে পারেন, ঘটনাস্থলে কিছু ব্যক্তি সরকারি চালের বস্তা পরিবর্তন করে ব্যক্তি মালিকানাধীন লোগো যুক্ত বস্তা ভর্তি করে কালোবাজারির মাধ্যমে বিক্রির প্রক্রিয়া করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালানো হয়।

তিনি বলেন, ‘খাদ্য অধিদপ্তরের লোগো সম্বলিত বস্তাগুলো খুলে সেখানে থাকা চাল নুরজাহান ব্রান্ড নামক কোম্পানির প্লাস্টিকের বস্তায় ঢুকিয়ে বাজারজাতের প্রক্রিয়াকরণ করা হচ্ছে। এ সময় ১৮ হাজার ৯৮০ কেজি সরকারি চাল জব্দ করা হয়। তার মধ্যে সরকারি খাদ্য অধিদপ্তরের লোগো যুক্ত ৩০ কেজি ওজনের বস্তা ছিল ৯৬টি। আর সরকারি বস্তা পরিবর্তন করে নুরজাহান ব্রান্ডের ৫০ কেজি ওজনের ৩০৬টি চালের বস্তা পাওয়া যায়। এছাড়া ঘরের মেঝেতে খোলা অবস্থায় প্রায় ৮০০ কেজি চাল ছিল।’

পুলিশের মামলায় গোডাউন ম্যানেজার আমিনুলকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। পুলিশ আরও বলছে, তদন্ত প্রক্রিয়া শেষে আসামীদের শনাক্ত করা সম্ভব হবে।

আসু