প্রবাস , বিশ্ব অর্থনীতি
অর্থনীতি

২২ বছরে বিশ্বে প্রবাসী আয় বেড়েছে ৬৫০ শতাংশ: আইওএম

গেল ২২ বছরে বিশ্বে প্রবাসী আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৩ হাজার কোটি টাকায়। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বনানীতে একটি হোটেলে ইন্টারন্যাশনাল অরগানাইজেশান অফ মাইগ্রেশন, আইওএম বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো কেন্দ্রীয়ভাবে আন্তর্জাতিক অভিবাসী প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনে উঠে আসে প্রায় সাড়ে ৭ কোটি মানুষ অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছে।

সভ্যতার শুরু থেকেই মানুষ ঘুরে বেড়িয়েছে বিশ্বের নানা প্রান্তে। তবে বর্তমানে তা দাঁড়িয়েছে ব্যক্তি উন্নতি, রাষ্ট্রের উন্নতি, বদলে যাওয়ার গল্প, কখনো কখনো আবার অন্ধকারের গল্পে। পৃথিবীব্যাপী প্রায় ২৮ কোটি মানুষ নিজ দেশ ছেড়েছে কাজের সন্ধানে।

আইওএম এর বার্ষিক প্রতিবেদনে উঠে আসে বিশ্বের সকল প্রবাসীদের তথ্য। মাইগ্রেশনে বিশ্বের শীর্ষ ৬ এ থাকা বাংলাদেশে এবারই প্রথম কেন্দ্রীয়ভাবে প্রতিবেদন প্রকাশের আয়োজন করে সংস্থাটি।

প্রতিবেদনে উঠে আসে গেলো ২২ বছরে বিশ্বে অভিবাসী বেড়েছে ৬৫০ শতাংশ। যার প্রভাব পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতিতে। ১৩ হাজার কোটি টাকা থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৩ হাজার ১০০ কোটি টাকার রেমিট্যান্স প্রবাহে। যার মধ্যে ৬৫ হাজার কোটি টাকা আয় করেছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলো। যা ব্যক্তিগত প্রভাবকে ছাড়িয়ে রাষ্ট্রীয়ভাবেও সুফল বয়ে আনছে বলেই মনে করে সংস্থাটি।

বিশ্বে প্রায় ১২ কোটি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। এদের মধ্যে রাজনৈতিক আশ্রয় এবং ধর্মীয় সংঘাতের মতো বিষয় জড়িত। আর নিজ দেশেই অন্ত:দ্বন্দ্ব ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন সাড়ে ৭ কোটি মানুষ। বাস্তুচ্যুত হওয়ার কারণ হিসেবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ যুক্ত হয়েছে যা দুশ্চিন্তার বড় কারণ বলে মনে করেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে সারাবিশ্বের জনসংখ্যার সাড়ে তিন শতাংশ মানুষ অভিবাসী হিসেবে কাজ করে। এর মধ্যে নারীর সংখ্যা ৪৮ শতাংশ। গেল বছর বিশ্বে সাড়ে ৮ হাজার অভিবাসী নিখোঁজ কিংবা মারা গেছেন বিভিন্ন কারণে। বিশ্লেষকরা বলছেন, সময়ের সাথে সাথে কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করলে বিশ্ব অর্থনীতির এই শক্তি ব্যর্থ হবে না।

এসএসএস

এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবর