দক্ষিণ আমেরিকা
বিদেশে এখন
সাগরে ভাসছে বিশাল হিমশৈল
দশকের পর দশক স্থির থাকার পর সরে যেতে শুরু করেছে অ্যান্টার্কটিকা মহাদেশের সবচেয়ে বড় হিমশৈল।

এ টু থ্রি নামের এ হিমশৈল নিউইয়র্কের আকারের তিনগুণ, আর গ্রেট ব্রিটেনের দ্বিগুণ। এই হিমশৈলের আকার ৪ হাজার স্কয়ার কিলোমিটার। গেলো তিন দশক ধরে ওয়েন্ডেল সাগরে স্থির অবস্থায় ছিলো এই আইসবার্গ।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এতো বড় আকারের আইসবার্গ সমুদ্রে ভেসে যাওয়ার ঘটনা বিরল। গত বছর থেকে এটি এতো গতিতে সরছে যে, বরফ খণ্ডটি অ্যান্টার্কটিকা সাগরের বাইরে চলে যাচ্ছে।

এই বরফ খণ্ডটির আয়তন যেমন বিশাল তার পুরুত্বও অনেক, প্রায় ৪০০ মিটার। যদি তুলনা করা হয় তাহলে লন্ডনের সবচেয়ে উঁচু ভবন ‘লন্ডন শার্ডের’ সমান। যার উচ্চতা ৩১০ মিটার।

হিমশৈলটি একসময় হোয়াইট কন্টিনেন্টের ফিলচনার আইস শেল্ফের অংশ ছিল। একসময় এখানে সোভিয়েত ইউনিয়নের গবেষণা স্টেশন ছিল।

কিন্তু প্রায় ৪০ বছর পর এ টু থ্রি হিমশৈলটি সরে যাচ্ছে কেন? এমন প্রশ্ন নিয়ে ব্রিটিশ অ্যান্টার্কটিকা সার্ভের রিমোট সেন্সিং বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্ড্রু ফ্লেমিং বলেন, 'আমি আমার বেশ কয়েকজন সহকর্মীকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করেছিলাম। তাদের ধারণা, সাগরের পানির তাপমাত্রার পরিবর্তনের কারণে এমন হতে পারে।'

এমএসএ
আরও পড়ুন: